ডাটা রিকভারি এত ব্যয়বহুল কেন? বিস্তারিত জানুন

ডাটা রিকভারি এত ব্যয়বহু

সময়ের সাথে সাথে প্রযুক্তির ব্যবহার বেড়ে চলছে বহুগুণে। আর এই প্রযুক্তির যুগে মোবাইল, কম্পিউটার সহ বিভিন্ন আধুনিক সব ডিভাইস আমাদের নিত্য প্রয়োজনীয় বস্তুতে পরিণত হয়েছে। আর এসব ডিভাইসেই সংরক্ষিত থাকে আমাদের যাবতীয় ডাটা সমূহ। এবং এই ডাটাগুলোই আমাদের ব্যক্তি ও কর্মজীবনের অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ অংশ। আর অনাকাঙ্ক্ষিত কোনো কারণে যদি ডাটাগুলো হারিয়ে যায় তাহলে সে ডাটাগুলো রিকভার করতে গুনতে হয় বেশ ভালো পরিমাণ অর্থ। আবার ডাটাগুলো এতই গুরুত্বপূর্ণ যে, রিকভার না করেও উপায় নেই।

 

কিন্তু ডাটা রিকভারি এত ব্যয়বহুল কেন? আসুন ছোট্ট একটি উদাহরণ দিয়ে শুরু করি –

 

মনে করুন আপনার হাতের একটি আঙ্গুল ভেঙে গেল। সেটার চিকিৎসা আপনি আমাদের দেশের যে কোনো সরকারি হসপিটাল বা ক্লিনিকেই অতি অল্প সময় ও খরচে করতে পারবেন। কারণ সমস্যাটা খুব বেশি গুরুতর না এবং চিকিৎসকের খুব বেশি সময় দিতে হয় না, লাগে না কোনো উন্নতর চিকিৎসা সরঞ্জাম।

 

কিন্তু ভেবে দেখুন, হঠাৎ আপনার মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ হলো। এ রোগের চিকিৎসা ওইসব হসপিটাল বা ক্লিনিকে করা তো দূরের কথা, রোগ সম্পর্কে অবগত হতেই বেগ পেতে হবে তাদের। কারণ ওইসব হসপিটালে এ রোগ নির্ণয় করার মতো এত উচ্চ ডিগ্রিধারী ডাক্তার সচরাচর থাকেন না। এমনকি পরীক্ষা করার মতো অত্যাধুনিক সব সরঞ্জামও থাকে না।

 

বাধ্য হয়ে আপনাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য নামকরা সব হসপিটালে যেতে হয়। অনেক বেশি পরিমাণ অর্থ ভিজিট দিয়ে মস্তিষ্ক নিয়ে গবেষণা করেন এমন উচ্চতর ডিগ্রিধারী ডাক্তার দেখাতে হয়। এবং সেই ডাক্তারও অত্যাধুনিক সব চিকিৎসা সরঞ্জাম দিয়ে পরীক্ষা নিরিক্ষা শেষে আরো দামি দামি চিকিৎসা সরঞ্জাম ব্যবহার করে আপনার অপারেশন করে থাকে। স্বাভাবিকভাবেই সে অপারেশনে খরচ হয় আকাশচুম্বী।

 

অতএব কম্পিউটারের অন্য কোনো যন্ত্রণাংশ মেরামতের চেয়ে হার্ডডিক্স বা অন্য কোনো স্টোরেজ ডিভাইস হতে ডাটা রিকভার করতে একজন ব্যক্তিকে অনেক অভিজ্ঞ হতে হয়, ব্যবহার করতে হয় অত্যাধুনিক ডাটা রিকভারি ল্যাব ও বিশ্বের নাম্বার ওয়ান সব টেকনোলজি।

 

ডাটা রিকভারি ব্যয়বহুল হওয়ার প্রধান কারণ –

 

সাধারণভাবেই ডাটা রিকভারি অত্যান্ত নিখুঁত ও পর্যবেক্ষণশীল একটি কাজ। এজন্যই একটি ডিভাইস হতে ডাটা রিকভার করতে কয়েক হাজার থেকে শুরু করে কয়েক লাখ টাকা পর্যন্তও লাগতে পারে৷ তবে এটার পরিমাণ নির্ভর করে আপনার ডিভাইস ড্যামেজ কেইসের উপর। আপনার ডিভাইস যত বেশি ক্রিটিকাল হবে, ড্যামেজের পরিমাণ যতবেশি হবে ডাটা রিকভার করতেও ততবেশি বেশি ব্যয় হবে। আসুন, উল্লেখযোগ্য কিছু কারণ জেনে নিই –

 

১. অত্যাধুনিক প্রযুক্তি

 

হার্ডড্রাইভ থেকে ডাটা রিকভারি করার জন্য ব্যবহার করতে হয় উচ্চতর ক্ষমতাসম্পন্ন, হাই কোয়ালিটির টেকনোলজি। একটা, দুইটা নয়, কোনো কোনো ক্ষেত্রে ডজনখানেকের বেশি টেকনোলজি ব্যবহার করতে হয়৷ আরো ব্যবহার করতে হয় বিভিন্ন ধরনের এডভান্স সব টুলস, সফটওয়্যার ও হার্ডওয়্যার। আর এগুলোর প্রত্যেকটি বিশ্বের নম্বর ওয়ান সব টেকনোলজি সরঞ্জাম, যেগুলো সংগ্রহ করতে একটি ডাটা রিকভারি প্রতিষ্ঠানকে ব্যয় করতে হয় বিপুল পরিমাণ অর্থ। তাহলে ডাটা রিকভারি ব্যয়বহুল হবে না কেন?

 

২. নিয়ন্ত্রিত ল্যাব

 

ডাটা রিকভারির জন্য প্রয়োজন একটি বিশেষায়িত ল্যাব, যেটি হতে হবে ক্লাশ ১০০ ক্লিন রুম ফ্যাসিলিটি সম্পন্ন বদ্ধ কক্ষ, অত্যান্ত পরিষ্কার ও নিয়ন্ত্রিত তাপমাত্রার পরিবেশ। এতটাই নিয়ন্ত্রিত হতে হবে যেন, হার্ডড্রাইভ খোলার পর তাতে একটি ধূলিকণাও স্পর্শ করতে না পারে। নতুবা এই সামান্য কারণেও পুরোপুরি অকেজো হয়ে যেতে পারে আপনার হার্ডড্রাইভটি৷ আর এত নিয়ন্ত্রিত একটি ল্যাব তৈরি করা এবং পরিচালনা করা বেশ ব্যয়বহুল। তাহলে ডাটা রিকভারি ব্যয়বহুল হবে না কেন?

 

৩. রিকভারি টাইম

 

ড্যামেজ হয়ে যাওয়া একটি হার্ডড্রাইভ এনালাইসিস করা এবং হারিয়ে যাওয়া ডাটাগুলো রিকভার করতে বিভিন্ন টুলস, সফটওয়্যার ও হার্ডওয়্যারের মাধ্যমে পূঙ্ক্ষানুপুঙ্ক্ষ পর্যালোচনা করতে হয়৷ হারিয়ে যাওয়া ডাটাগুলোর প্রত্যেকটির লোকেশন খুঁজে বের করতে হয়। এতসব কিছু করতে একজন ডাটা রিকভারি এক্সপার্টের ২৪ থেকে ৭২ ঘন্টা বা তার বেশি সময়ও লাগতে পারে। অতএব ডাটা রিকভারি ব্যয়বহুল হবে, এটাই স্বাভাবিক।

 

৪. সার্টিফাইড টেকনিশিয়ান

 

একটি ডাটা রিকভারি প্রতিষ্ঠানকে এমন একটি ডাটা রিকভারি এক্সপার্ট টিম গঠন করতে হয়, যে টিমটি বর্তমানের যত ধরনের স্টোরেজ ডিভাইস রয়েছে সে সবগুলো সম্পর্কে এডভান্স ধারনা রাখেন এবং সে ডিভাইসগুলো থেকে ডাটা রিকভারিতে এক্সপার্ট থাকেন। এই এক্সপাট ডাটা রিকভারি টিমটি থাকে উচ্চ প্রশিক্ষিত এবং সার্টিফাইড৷ আর এই এক্সপার্ট প্রশিক্ষিত টিম গঠন করতে একটি ডাটা রিকভারি প্রতিষ্ঠানকে বিপুল পরিমাণ অর্থ ব্যয় এবং পরিশ্রম করতে হয়। তাহলে ডাটা রিকভারি ব্যয়বহুল হবে না কেন?

 

৫. হার্ডডিক্সের ক্লোন তৈরি করা

 

যেহেতু আপনার হার্ডড্রাইভটি এমনিতেই ড্যামেজ থাকে তাই যে কোনো ডাটা রিকভারি প্রতিষ্ঠান ঝুঁকি এড়াতে প্রথমেই একটি ক্লোন হার্ডডিক্স তৈরি করে নেন। যাতে কোনো সমস্যার কারণে আপনার ডাটাগুলো পুরোপুরিভাবে নষ্ট হলেও অন্য কোনো ডিভাইসে ব্যাকআপ থাকে। এমনকি ডাটা রিকভারি করার পরও আপনার ডাটাগুলো তারা অস্থায়ী ব্যাকআপ নিয়ে রাখে।
মূলত এসব কারণেই যে কোনো ডাটা রিকভারি প্রতিষ্ঠানে কোনো ডিভাইসের ডাটা রিকভারি চার্জ বেশি থাকে। এবং এটি ন্যায়সঙ্গতও বটে।

 

ডাটা রিকভারিতে ব্যয় কমাবেন কীভাবে?

 

ডাটা রিকভারি এত ব্যয়বহুল কেন এবং এটি কেন ন্যায়সঙ্গত, আশা করি তা উপলব্ধি করতে পেরেছেন। তবে আপনি একটু সতর্ক হলে এই ডাটা রিকভারিতে অর্থ ব্যয়ের পরিমাণটা অনেকাংশেই কমিয়ে আনতে পারেন।

 

১. অনভিজ্ঞ কারো দ্বারা ডাটা রিকভার করার চেষ্টা করবেন না

 

অধিকাংশ মানুষই ঠিক এই ভুলটিই করে থাকেন৷ কোনোভাবে ডাটা হারিয়ে ফেললে নিজে নিজে অথবা অনভিজ্ঞ কারো দ্বারা ডাটা রিকভার করার ব্যর্থ চেষ্টা করে থাকেন৷ অনেকেই সরাসরি হার্ডডিক্স খোলার চেষ্টা করেন। এতে করে উক্ত হার্ডডিক্স থেকে ডাটা রিকভার করার সম্ভাবনা অনেকাংশে কমে যায়৷ নতুবা ডাটা রিকভার করতে পারলেও পুড়তে হয় অনেক কাঠখড়। আর তখনি আপনার ডাটাগুলো রিকভারি অনেক ব্যয়বহুল হয়ে পড়ে। অতএব এই ভুলটি কখনই করবেন না।

 

২. একজন ডাটা রিকভারি এক্সপার্টের পরামর্শ নিন

 

অনাকাঙ্ক্ষিতভাবে কখনো আপনার ডাটা হারিয়ে গেলে কোনো সাতপাঁচ না ভেবে যতদ্রুত সম্ভব একজন ডাটা রিকভারি এক্সপার্টের শরণাপন্ন হোন এবং তার পরামর্শ নিন। তিনিই আপনার ডিভাইস এনালাইসিস করে ভালো বলতে পারবেন, আপনার কী করা উচিত। নতুবা অনভিজ্ঞ কোনো ব্যক্তির কাছে ভুল কোনো পরামর্শে চিরতরে হারিয়ে ফেলতে পারেন আপনার ডাটাগুলো৷ নতুবা ব্যয়বহুল হয়ে পড়বে আপনার ডাটাগুলো রিকভার করতে।

 

আশাকরি এবার আর আপনার বুঝতে বাকি নেই, কেনইবা ডাটা রিকভারি এত ব্যয়বহুল। এবং এটাও জানতে পেরেছেন, কীভাবে ডাটা রিকভারি ব্যয় কমানো সম্ভব। সুতরাং কখনো এ ধরনের পরিস্থিতির সম্মুখীন হলে অনতিবিলম্বে একটি বিশ্বস্ত ও প্রতিষ্ঠিত ডাটা রিকভারি প্রতিষ্ঠানের শরণাপন্ন হবেন। আর ডাটা রিকভারিতে আপনার বিশ্বস্ত প্রতীক হতে পারে ‘Data Recovery Station’। আমাদের রয়েছে বিশ্বের নাম্বার ওয়ান সব ডাটা রিকভারি প্রযুক্তি, ক্লাশ ১০০ ক্লিন রুম বিশিষ্ট নিয়ন্ত্রিত ল্যাব ও অত্যান্ত অভিজ্ঞ ডাটা রিকভারি এক্সপার্ট টিম।

Share With

Share on facebook
Share on twitter
Share on email

You may also like

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Most Popular Post

Have You Lost Data!

We have ability of recuperating your data from all kind of digital storage devices