মোবাইল ডাটা রিকভারি কিভাবে করব? ডাটা নষ্ট হওয়ার কারন

মোবাইল ডাটা রিকভারি

আমরা যারা ফোন ইউজ করি এখন আমাদের ফোনের স্টোরেজ 32 জিবি চৌষট্টি জিবির মত মেমোরি থাকে। সেজন্য অনেকেই এক্সটার্নাল কোন মেমোরি কার্ড ব্যবহার করেন না। কারন তাদের প্রয়োজনীয় স্টোরেজ ফোনের মধ্যেই রয়েছে। এটা নিঃসন্দেহে অনেক ভালো একটা ব্যাপার, কিন্তু সমস্যাটা হয় যখন কোন একটা সমস্যার কারণে আমাদের ফোনের স্টোরেজ থেকে ফাইল মিসিং হয়ে যায় কিংবা সেই স্টোরেজটাই নষ্ট হয়ে যায়।

 

এটা কি আমরা মোবাইল ডাটা মেশিন কিংবা মোবাইল ডাটা ক্র্যাশ বলতে পারি। অনেকের মনের মধ্যে প্রশ্ন আছে যে এরকম ক্র্যাশ করা কিংবা হারিয়ে যাওয়া ডাটা কি ফিরিয়ে আনা কখনো সম্ভব? আমাদের উত্তর হচ্ছে হ্যাঁ অবশ্যই সম্ভব। যেই প্রসেস ফলো করে এই হারিয়ে যাওয়া টাকা ফেরত আনা হয় সেটাকে বলা হয় মোবাইল ডাটা রিকভারি। আমাদের আজকের ব্লগ পোস্টের টপিক এটাই। আমরা জানবো কি করলে মোবাইলের ডাটা রিকভার করা যায়।

 

মোবাইল ডাটা রিকভারি কি?

 

সাধারণভাবে বলতে গেলে মোবাইল ডাটা রিকভারি হচ্ছে মোবাইল থেকে যেকোনো হারিয়ে যাওয়ার ডাটাকে কোন একটা পদ্ধতিতে উদ্ধার করা কিংবা রিকভার করা। এখন নানা ধরনের পদ্ধতি রয়েছে, সবচেয়ে বেশি রিকমেন্ডেড পদ্ধতি হচ্ছে যেকোনো ডাটা রিকভারি এক্সপার্ট এর শরণাপন্ন হওয়া।

 

আমি বিশ্বাস করি যে আপনার ফোনের মধ্যে অবশ্য আপনার প্রয়োজনীয় এবং জরুরি কোনো ডাটা ছিল, যার কারণে আপনি সেটা রিকভার করতে চাইছেন। আপনি নিশ্চয়ই চাইবেন না আপনার ফোন থেকে ওই ডাটাটা চিরতরে মিসিং হয়ে যাক। যদি সেটা না চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে এক্সপার্ট কোন ডাটা রিকভারি প্রতিষ্ঠান কিংবা ব্যক্তির সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে।

 

আপনি হয়তো অনেক ইউটিউব ভিডিও কিংবা ফেসবুক পোস্টের মধ্যে দেখে থাকতে পারেন যে এই সফটওয়্যার দিয়ে ওই সফটওয়্যার দিয়ে ডাটা রিকোভার করা যায়। কিন্তু আদৌ সেটা বাস্তবে কাজ করে না। আপনার মেমোরিতে যদি কোন লজিক্যাল প্রবলেম থাকে তাহলে অনেক সময় হয়তো কিছু মিসিং ডাটা আপনি রিকভার করতে পারেন কোন একটা ফ্রি সফটওয়্যার দিয়ে।

 

কিন্তু আপনার স্টোরেজে যদি কোন প্রকার ফিজিকাল প্রবলেম থাকে তাহলে সেটা কখনোই এক্সপার্ট ব্যক্তি ছাড়া রিকভার করা সম্ভব নয়।

 

ডাটা নষ্ট হওয়ার কারন কি?

 

আপনার ফোন থেকে ডাটা নষ্ট হয়ে যাওয়ার পেছনে কিছু কারণ থাকতে পারে, আসুন জেনে নেই কারণ সমূহঃ

 

১। আপনার ফোনে যদি কোন ম্যালওয়ার বা কোন ভাইরাস আক্রমণ করে তাহলে আপনার ফোন থেকে ডাটা হারিয়ে যাওয়ার কিংবা ডাটা মিসিং হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। অনেক সময় দেখা যায় এসব মেল সিঙ্গার ভাইরাস আপনার ফোন থেকে ডাটা চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে।এবং একটা পর্যায়ে সেটা কোনো না কোনো এক হ্যাকারের হাতে পৌঁছেছে এবং ওই ডাটার জন্য সেই হ্যাকার আপনাকে ব্ল্যাকমেইল করছে।

 

২। আনঅফিসিয়াল মোবাইল অ্যাপ ব্যবহারের কারণে আপনি ডাটা হারাতে পারেন। কারণ আমরা যখন একটা সফটওয়্যার কোন একটা অ্যাপ ইন্সটল করি তখন ঐ এপ আমাদের ফোনের কিছু এক্সেস চেয়ে নেয়, যেমন ক্যামেরা এক্সেস, স্টোরেজের এক্সেস, কিংবা কন্টাক্ট লিস্ট এর এক্সেস ইত্যাদি। এর মানে হচ্ছে এই অ্যাপের ডেভেলপাররা এখন চাইলে আপনার ফোনের মধ্যে কি কি ডাটা রয়েছে এবং কি কি কন্টাক রয়েছে সব দেখতে পারে। এজন্য আমাদের সবাইকে এন্ড ট্রাস্টেড সোর্স থেকে আগত অ্যাপ ইন্সটল করা বন্ধ করতে হবে।

 

৩। কোন কারণে যদি মোবাইল ফোনে বড় ধরনের কোনো আঘাত লাগে তাহলে এ স্টোরেজে সমস্যা আসতে পারে। এবং সে টানাটানি সিং-এর একটা অনেক বড় কারণ হতে পারে।

 

৪। ফোনের পাওয়ার সাপ্লাইয়ের যদি কোন সমস্যা হয় এবং যদি পাওয়ার সাপ্লাই আউট্রেজ হয়ে যায়, তাহলে স্টোরেজে সমস্যা হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি।

 

৫।অনেক সময় দেখা যায় যে আপনার আশেপাশে থাকা কেউ শত্রুতা করে আপনার ফোন থেকে ডাটা ডিলিট করে দিচ্ছে কিংবা সেটা কোন না কোন ভাবে হ্যাক করে নিয়ে যাচ্ছে। সাধারণভাবে ডিলিট হওয়া ডাটা অনেক সময় অনেক ফ্রি সফটওয়্যার দিয়ে খুব সহজেই ফিরিয়ে আনা যায়। তবে আপনি প্রফেশনাল সার্ভিস চাইলে আমরা অবশ্যই সাজেস্ট করবো ভালো কোন একটা ডাটা রিকভারি সার্ভিস সেন্টারে যাওয়া।

 

মোবাইল ডাটা রিকভারি কিভাবে করব?

 

আপনার মোবাইল ফোনের ডাটা রিকভার করার জন্য আমাদের সাজেশন হচ্ছে আপনি একটা এক্সপার্ট ডাটা রিকভারি প্রতিষ্ঠান শরণাপন্ন হবেন এবং তাদের কাছ থেকে সার্ভিস গ্রহন করবেন। Data Recovery Station এই ক্ষেত্রে অনেক উন্নতমানের সার্ভিস দিয়ে আসছে বহু বছর ধরে।

 

আপনার যদি কোন প্রকার ডাটা রিকভার করার প্রয়োজন হয় তাহলে আপনি চাইলেই ডাটা রিকভারি স্টেশন এর সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। এখানে অনেক উন্নত মানের এবং এক্সপার্ট ডাটা রিকভারি ল্যাব রয়েছে। যেখানে আপনার মূল্যবান ডাটাকে অনেক যত্নের সহিত রিকভার করা হবে। এবং এটা খুবই বিশ্বস্ত প্রতিষ্ঠান যেখানে আপনার ডাটা চুরি হওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই।

 

তাই আমরা চাইবো আপনি যদি আসলেই আপনার ডাটা রিকোভার করতে চান তাহলে অবশ্যই একটা ভালো ধরনের ডাটা রিকভারি সার্ভিস দেয় এরকম প্রতিষ্ঠানের শরণাপন্ন হন। কোন প্রকার ফ্রি সফটওয়্যার দিয়ে চেষ্টা করে শুধু শুধু নিজের ডাটা কে চিরতরে হারিয়ে ফেলবেন না। অনেকেই ফ্রি সফটওয়্যার দিয়ে চেষ্টা করতে গিয়ে নিজের মূল্যবান ডাটাকে একেবারে হারিয়ে ফেলেন। আবার অনেকেই নষ্ট স্টোরেজ কে নিজে নিজে ঠিক করতে গিয়ে ওই স্টোরেজের সব মূল্যবান পার্টস গুলো নষ্ট করে ফেলে যার ফলে পরবর্তীতে ওইখান থেকে আর কোনভাবে ডাটা রিকোভার করা যায় না।

 

এই ছিল আমাদের আজকে মোবাইল ডাটা রিকভারি নিয়ে গাইডলাইন। আশা করি আপনারা মোবাইল ডাটা রিকভারি সম্পর্কে ভালো ধারণা পেয়েছেন। আপনারা চাইলে খুব সহজেই মোবাইল ডাটা রিকভার করতে পারেন যে কোন এক্সপার্ট প্রতিষ্ঠান শরণাপন্ন হয়ে।

Share With

Share on facebook
Share on twitter
Share on email

You may also like

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *